banglanewspaper

ভেনেজুয়েলায় সামরিক হস্তক্ষেপের যে ইঙ্গিত আমেরিকা দিয়েছে সে ব্যাপারে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে রাশিয়া। বুধবার (১৬ জানুয়ারি) রাশিয়ার রাজধানী মস্কোয় এক সংবাদ সম্মেলনে রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ বলেছেন, ল্যাটিন আমেরিকার এই দেশটির সরকারের সঙ্গে বিরোধী দলগুলোর আলোচনা ভণ্ডুল করার চেষ্টা করছে ওয়াশিংটন। 

তিনি বলেন, আমরা ভেনেজুয়েলায় সামরিক হস্তক্ষেপ সংক্রান্ত কথাবার্তার আভাস পাচ্ছি। যুক্তরাষ্ট্র প্রেসিডেন্ট হিসেবে নিকোলাস মাদুরোকে নয় বরং দেশটির পার্লামেন্টের অন্য কোনও প্রতিনিধিকে স্বীকৃতি দিতে চায়। এসব কথাবার্তা অত্যন্ত উদ্বেগজনক।

রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ভেনেজুয়েলার ব্যাপারে এসব গতিবিধি প্রমাণ করে, আমেরিকা বিশ্বের যেসব সরকারকে অপছন্দ করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া অব্যাহত রেখেছে ওয়াশিংটন।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প গত বছর হুমকি দিয়ে বলেছিলেন, ভেনেজুয়েলার চলমান সংকট নিরসনের লক্ষ্যে তিনি দেশটিতে ‘সামরিক হস্তক্ষেপ’-এর সম্ভাবনাকে উড়িয়ে দিচ্ছেন না।

বৃহৎ তেলের মজুদ থাকা সত্ত্বেও গত কয়েক বছর ধরে কঠিন অর্থনৈতিক পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে হচ্ছে ভেনেজুয়েলাকে। সাম্প্রতিক সময়ে দেশটির সাধারণ মানুষকে সীমান্ত পাড়ি দিয়ে কলম্বিয়া থেকে খাদ্যসহ অন্যান্য জরুরি সামগ্রী সংগ্রহ করতে দেখা গেছে। দেশটির প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো এই পরিস্থিতির জন্য আমেরিকাকে দায়ী করেছেন।

তিনি বলেন, মার্কিন সাম্রাজ্যবাদের বিরোধিতা করার কারণে ওয়াশিংটন তার সরকারের পতন ঘটাতে এই অর্থনৈতিক দুরাবস্থা চাপিয়ে দিয়েছে।