banglanewspaper

মোঃ আব্দুল হাকিম, নিজস্ব প্রতিবেদক: ঐতিহাসিক জেলা সদর নাটোরে গত দশ বছরে যে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে তারই ধারাবাহিকতা ধরে আরও উন্নয়নের স্বার্থেই নাটোর-২ আসনে বিপুল ভোটে দ্বিতীয় বারে নির্বাচিত সংসদ সদস্য হিসেবে মোঃ শফিকুল ইসলাম শিমুলকে নাটোরবাসী মন্ত্রী হিসেবে দেখতে চান। নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক সৈয়দ মরতুজা আলী বাবলু, জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমিন বিপ্লব, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রাকিবুল ইসলাম জেমস্ এবং নাটোর জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী রত্না আহমেদ তাঁকে মন্ত্রী করার দাবি করেছেন।

তারা বলেন, তরুণ এই নেতা মোঃ শফিকুল ইসলাম শিমুল যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক থাকা অবস্থায় তিনি সদর উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর আওয়ামী লীগকেকে সুসংগঠিত করে কর্মীদের সমর্থনেই জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন।

তারা জানান, বর্তমান সরকারের সময়ে শিমুলের নেতৃত্বেই নাটোর টেক্সটাইল ইন্সটিটিউট, শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার, এক হাজার আসনের অত্যাধুনিক জেলা পরিষদ হল, ইনডোর স্টেডিয়াম, থানা ভবন, অসংখ্য সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের একাডেমিক ভবন, রাস্তা-ঘাট ও  ব্রীজ-কালভার্ট নির্মাণ সহ মসজিদ-মন্দিরের উন্নয়ন-সংস্কার করা হয়েছে। এছাড়াও নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালটি আড়াইশ’ শয্যায় উন্নীত করণ এবং শহরের প্রধান সড়কটি ডিভাইডার ও ড্রেন-কাম ফুৃটপাত সহ প্রশস্ত করণের কাজও দ্রুত এগিয়ে চলছে।  

নাটোরে দু’টি রাজবাড়ি, দু’টি জমিদার বাড়ি, একটি নীলকুঠি, চলনবিল ও মিনি কক্সবাজার খ্যাত হালতিবিল সহ ঐতিহাসিক স্থাপনা সম্বৃদ্ধ নাটোরকে একটি পর্যটন নগরীতে গড়ে তোলার পাশপাশি নাটোরের সাধারন মানুষের আর্থসামাজিক অবস্থা উন্নয়নে মোঃ শফিকুল ইসলাম শিমুলের মন্ত্রী হওয়াটা খুবই জরুরী। তারা বলেন, জেলা সদরে বিগত বিএনপি এবং আওয়ামী লীগ সরকারের সময়ে একজন করে মন্ত্রী ছিলেন। এতে করে যে কোন উন্নয়ন কাজে সরকার ও স্থানীয় প্রশাসনের সাথে সমন্বয় করাও সহজ হয়েছে।

তাই এই সব দিক বিবেচনা করে মোঃ শফিকুল ইসলাম শিমুলকে আগামী মন্ত্রী পরিষদে স্থান করে দেয়ার যুক্তিসম্মত দাবী করেছেন নাটোরের তৃণমূল পর্যায়ের সাধারণ মানুষ।