banglanewspaper

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম উদ্যোক্তা ও সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় ৬ মাসের জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট।

মঙ্গলবার (১৮ ডিসেম্বর) বিচারপতি মো. রেজাউল হক ও বিচারপতি জাফর আহমেদের বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী এ এফ হাসান আরিফ। সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী মাসুদ রানা। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল খুরশীদুল আলম।

লাইভ টকশোতে নারী সাংবাদিককে মন্তব্যের জেরে গত ২৬ অক্টোবর ঢাকার গুলশান থানায় করা এ মামলায় আসামি পক্ষের আবেদনের প্রেক্ষিতে আদালত তাকে ৬ মাসের জামিন দেন।

টেলিভিশনের টক শো’তে সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টিকে ‘চরিত্রহীন’ বলার অভিযোগে রংপুরের একটি মানহানি মামলায় ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে গত ২২ অক্টোবর রাত পৌনে ১০টার দিকে রাজধানীর উত্তরায় জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি)’র সভাপতি আ স ম আবদুর রবের বাসা থেকে গ্রেফতার করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।

গত ২৩ অক্টোবর দুপুর ২টার দিকে তাকে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের আদালতে নেয়া হয়। এসময় ব্যারিস্টার মইনুলের জামিন আবেদন করেন তার আইনজীবী। আদালত জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

একই অভিযোগে মঈনুলের বিরুদ্ধে রংপুর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, কুমিল্লা, ভোলা ও কুড়িগ্রামেও মামলা হয়। এরমধ্যে একাধিক মামলায় পরোয়ানা জারি করেন বিচারিক আদালত। কয়েকটি মামলায় তিনি ইতোমধ্যে জামিনও পেয়েছেন।