banglanewspaper

ফেনী: ফেনী শহরতলীর গোবিন্দপুর এলাকায় পাশের বাড়ির ডাকাতি প্রতিরোধ করতে গিয়ে ডাকাতের হাতে মোহাম্মদ ইউনুস মাসুম নামে এক স্কুল ছাত্র নির্মমভাবে খুন হয়েছে।

বুধবার (২২ নভেম্বর) রাতে চট্টগ্রামে চিকিৎসাধীন অবস্থানে তার মৃত্যু হয়। পরিবারের একমাত্র ছেলেকে হারিয়ে বাকরুদ্ধ মা-বাবা ও স্বজনরা। নিহত মাসুম গোবিন্দপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থী ছিল।

একমাত্র ছেলে মাসুমকে হারিয়ে এভাবেই বিলাপ করছেন মা দেলোয়ারা বেগম। ফেনী শহরতলী কালিগহ ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রাম। যে গ্রামে প্রায় রাতে ডাকাত হানা দেয়। গত ১৫ নভেম্বর রাতে একদল ডাকাত হানা দিলে মসজিদের মাইকে ঘোষণা দেয় স্থানীয়রা।

গ্রামবাসীর সাথে মাসুমও বের হয়। একপর্যায়ে ডাকাতের কবলে পড়লে ডাকাতরা এলোপাতাড়ি মাসুমকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে পালিয়ে যায়। পরে তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় চট্টগ্রামের একটি হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার রাতে তার মৃত্যু হয়।

বৃহস্পতিবার দুপুরে মাসুমের গ্রামের বাড়ির দরজায় জানাযা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়। মাসুম ছাড়াও তার তিন বোন রয়েছে। তার বাবা প্রবাসী।

নিহতের জানাযায় পুলিশ উপস্থিত থাকলেও এবিষয়ে পুলিশ প্রশাসনের কেউ কথা বলতে রাজি হননি। ফেনী শহরতলীর এই এলাকাসহ পাশের কয়েকটি ইউনিয়নে গত কয়েক সপ্তাহ ধরে প্রায় প্রতিরাতেই এক বা একাধিক বাড়িতে ডাকাতির ঘটনা ঘটছে বলে অভিযোগ স্থানীয়দের।