banglanewspaper

আফ্রিকার দেশ ইথিওপিয়াতে ২শ’ মানুষের একটি গণকবরের সন্ধান পাওয়া গেছে বলে দেশটির পুলিশ জানিয়েছে। সোমালি ও ওরোমিয়া অঞ্চলের মধ্যবর্তী সীমান্তে এসব লাশের সন্ধান পাওয়া গেছে।

শুক্রবার বিবিসির এক প্রতিবেদন বলছে, এই অঞ্চলে গত কয়েক বছর ধরে চলা সহিংসতায় অন্তত কয়েক হাজার বাসিন্দা বাস্তুচ্যুত হয়েছে।

স্থানীয় গণমাধ্যম জানায়, ইথিওপিয়ার সোমালি অঞ্চলের সাবেক প্রেসিডেন্টের নৃশংসতার তদন্ত করতে গিয়ে এই গণকবরের সন্ধান পাওয়া যায়।

সোমালি অঞ্চলের সাবেক প্রেসিডেন্ট আব্দি মোহাম্মদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি জাতিগত দাঙ্গায় মদত দিয়েছেন। খুব শিগগির তার বিচার শুরু করবে দেশটির সরকার।  

‘লিইউ পুলিশ’ নামে পরিচিত একটি কুখ্যাত আঞ্চলিক নিরাপত্তা বাহিনী সোমালি ও ওরোমিয়া অঞ্চলে ব্যাপক হত্যাকাণ্ড চালানোর অভিযোগ রয়েছে। তারা সরাসরি প্রেসিডেন্টের কাছে প্রতিবেদন জমা দিত। পুলিশ ২শ’ মৃতদেহ শনাক্ত করার চেষ্টা করছে।

চলতি বছরের আগস্টে পদত্যাগ করতে বাধ্য হন আব্দি মোহাম্মদ। আঞ্চলিক রাজধানী জিজিগাতে সহিংসতা ছড়িয়ে পড়লে কয়েক সপ্তাহ পর তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

আব্দি মোহাম্মদ ১৩ বছর প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করেছেন। তার শাসনামলে অত্যাচার, ধর্ষণ, হত্যাসহ ব্যাপকভাবে ক্ষমতার অপব্যবহার হয়।  

গত মাসে রাষ্ট্রীয় সমর্থনে পরিচালিত টেলিভিশন চ্যানেল ফানা জানায়, আদালতের শুনানির আগে পুলিশি হেফাজত থেকে জানালা ডিঙিয়ে পালানোর চেষ্টা করেন তিনি।