banglanewspaper

মাগুরা প্রতিনিধি: মাগুরা সদর থানার নিশ্চিন্তপুর গ্রামের ফারুক হোসেন নামে এক ব্যক্তির বাড়ি থেকে মঙ্গলবার রাতে চুরি হওয়া ১০ দিন বয়সী এক কন্যা শিশুকে বাড়ির পাশের একটি পুকুর থেকে বুধবার মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

ফারুক হোসেন মাগুরা সরকারি হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজের অফিস সহকারি পদে চাকরিরত।

জানান, দীর্ঘ এক যুগ পর গত ১০ দিন আগে তার স্ত্রী  নার্গিস পারভীন ও তার ঘর আলো করে একটি কণ্যা শিশু জন্মগ্রহণ করে। মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে তার স্ত্রী শিশুটিকে বাড়ির একটি ঘরে বিছানায় রেখে পাশের ঘরে ছেলের কাছে যায়। ফিরে এসে দেখতে পান কন্যা শিশুটি বিছানায় নেই, এ সময় রাস্তার দিকের একটি দরজা খোলা দেখতে পান তিনি।

রাতেই অনেক খোজাখুজির পরও শিশুটিকে কোথাও খুজে পাওয়া যায়নি। পরে রাতেই সদর থানা পুলিশে খবর দেয়া হয়। পুলিশ ও গ্রামবাসী মিলে অনেক খুঁজাখুঁজি করেও সন্ধান পাওয়া যায়না। পরে আজ সকালে প্রতিবেশিরা বাড়ির পাশের একটি পুকুরে শিশুটিকে মৃত অবস্থায় ভাসতে দেখে উদ্ধার করে আনেন।

এ ঘটনায় পরিবারসহ এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। ধারণা করা হচ্ছে শিশুটিকে কেউ হত্যার উদ্দেশ্যে চুরি করে পুকুরে ফেলে দিয়েছিলো। তবে কারো সাথে তেমন কোন শত্রুতা নেই বলে দাবি করেন শিশুটির পিতা ফারুক হোসেন।

মাগুরা সদর থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘রাতে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। সকালে মৃত উদ্ধারের ঘটনাটি দুঃখজনক। দোষীদের কঠোর শাস্তির আওতায় আনা হবে জানান তিনি।’