banglanewspaper

র‌্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অপারেশনস) হিসেবে দায়িত্বভার গ্রহণ করেছেন কর্নেল মো. জাহাঙ্গীর আলম। তিনি কর্নেল মো. আনোয়ার লতিফ খানের স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন। মঙ্গলবার (১৮ সেপ্টেম্বর) দায়িত্বভার গ্রহণ করেন তিনি।

কর্নেল জাহাঙ্গীর আলম, কর্নেল স্টাফ, ১৯ পদাতিক ডিভিশন ঘাটাইল সেনানিবাস নিযুক্তি হতে প্রেষণে র‌্যাব ফোর্সেসে যোগদান করেন। ইতোপূর্বে তিনি র‌্যাব-১১ এর অধিনায়ক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন।

তিনি গত ১৬ ডিসেম্বর ১৯৯৩ সালে ২৯তম বিএমএ লং কোর্সের সঙ্গে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর পদাতিক কোরে কমিশন লাভ করেন। তিনি ৫৫ এবং ১৬ ইস্ট বেঙ্গলের বিভিন্ন পদসহ ৩৮ ইস্ট বেঙ্গলের অধিনায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

এছাড়া তিনি একটি পদাতিক ব্রিগেডে জিএসও-৩ (অপস), সেনাসদরের মিলিটারি অপারেশনস পরিদফতরের জিএসও-২ (অপস) এবং পদাতিক পরিদফতরের জিএসও-১ এর দায়িত্ব পালন করেন। তাছাড়া তিনি আর্মস ফোর্সেস ডিভিশন (এএফডি) এর জিএসও-১ (জয়েন্ট অপারেশন) এর দায়িত্ব পালন করেন।

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর একজন চৌকস অফিসার হিসেবে কুয়েত সেনাবাহিনীতে তিন বছর প্রেষণে কর্মরত ছিলেন। তিনি স্কুল অব ইনফেন্ট্রি অ্যান্ড ট্যাকটিকস, জালালাবাদ সেনানিবাস, সিলেট এ রণকৌশল বিভাগের প্রশিক্ষক এবং বাংলাদেশ মিলিটারি একাডেমির জেন্টেলম্যান ক্যাডেটদের প্রশিক্ষক (প্লাটুন কমান্ডার) হিসেবে নিযুক্ত ছিলেন।

কর্নেল জাহাঙ্গীর দেশ ও বিদেশে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের উপর সামরিক প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন। তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র হতে কাউন্টার টেরোরিজম কোর্স সম্পন্ন করেন। এছাড়া তিনি তুরস্ক হতে তার্কিস ভাষাসহ কোম্পানি কমান্ডার কোর্স সম্পন্ন করেন। তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও তুরস্ক ছাড়াও চীন, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, নেপাল, রাশিয়া, ভারত এবং শ্রীলঙ্কা হতে প্রশিক্ষণ অংশগ্রহণ করেন।

কর্মক্ষেত্রে অত্যন্ত সততা, পেশাদারিত্ব, বিচক্ষণতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করে সুনাম অর্জন করে আসা এ কর্মকর্তা গতবছরের ১১ জানুয়ারি কর্নেল পদে পদোন্নতি পেয়ে ১৯ পদাতিক ডিভিশন, ঘাটাইল সেনানিবাসে কর্নেল স্টাফ হিসেবে নিযুক্ত ছিলেন।