banglanewspaper

ফরহাদ খান, নড়াইল: নড়াইল জেলা কারাগারে দু’টি হত্যা মামলার আসামি আব্দুল করিম (২৬) আত্মহত্যায় দায়িত্বে অবহেলার জন্য কারারক্ষী মাসুম বিল্লাহ সরদারকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে কর্তৃপক্ষ।

বুধবার (১৬ মে) দুপুরে তাকে বরখাস্ত করা হয়। এদিকে, হত্যা মামলার আসামি আব্দুল করিম আজ বুধবার সকালে আত্মহত্যা করেন। আব্দুল করিম লোহাগড়া উপজেলার কোলা গ্রামের সরোয়ার হোসেনের ছেলে। সবজু, জাকির, জাহিদসহ তার (করিম) আরো কয়েকটি নাম রয়েছে।

এ ঘটনায় ডিআইজি (প্রিজন) টিপু সুলতান বুধবার দুপুরে কারাগার পরিদর্শন করেন। 

জেল সুপার মজিবুর রহমান মজুমদার জানান, বুধবার সকালে আব্দুল করিম কারাগারের ভেতরে কলাপসিবিল গেটে শার্ট পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন। অন্য আসামিরা দেখে কারা কর্তৃপক্ষকে খবর দিলে তাকে উদ্ধার করে সকাল ৯টা ৪০মিনিটে নড়াইল সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।

জেল সুপার আরো জানান, আব্দুল করিম কিছুটা মানসিক বিকারগ্রস্থ ছিলেন। কারাগারে থাকা অবস্থায় বিভিন্ন সময় অন্য আসামিদের সঙ্গে ঝামেলা সৃষ্টি করত। তাকে কয়েকবার চিকিৎসাও দেয়া হয়েছে। হত্যা মামলায় ২০১৫ সালের ২৬ ডিসেম্বর থেকে কারাগারে আছেন করিম। তার নামে নড়াইলের নড়াগাতি এবং গোপালগঞ্জ থানায় আলাদা দু’টি হত্যা মামলা রয়েছে। তবে কোন ধরণের হত্যা মামলা রয়েছে, তা বিস্তারিত জানা যায়নি। ময়নাতদন্ত শেষে করিমের লাশ তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

নড়াইল সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক আফতাব উদ্দিন জানান, আব্দুল করিমকে মৃত্যু অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়েছে।