banglanewspaper

তালেবান যোদ্ধারা ভারি অস্ত্রশস্ত্র এবং নাইট-ভিশন সরঞ্জামাদি নিয়ে লড়াই করতে করতে আফগানিস্তানের পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর ফারাহের কেন্দ্রের কাছাকাছি পৌঁছে গেছে। মার্কিন বাহিনীর বিমান সহায়তা নিয়ে শহরের নিয়ন্ত্রণ রক্ষার চেষ্টা করে যাচ্ছে আফগানিস্তানের সরকারী বাহিনী। কর্মকর্তা এবং স্থানীয় অধিবাসীরা এ তথ্য জানিয়েছেন।

ইরান সীমান্তের কাছাকাছি ফারাহ রাজ্যের রাজধানীর অধিবাসীরা কয়েক মাস ধরে সতর্ক করে আসছিলেন যে এই শহরটির অবস্থা নাজুক। এছাড়া উত্তরাঞ্চলীয় কুন্দুজ শহর আবারও দখল করে নেয়ার হুমকি দিচ্ছে তালেবানরা। ২০১৫ সালে স্বল্প সময়ের জন্য কুন্দুজের একবার পতন হয়েছিল।

শহরের একজন বাসিন্দা হামিদুল্লাহ টেলিফোনে বলেন, ‘তালেবানরা খুব দ্রুত এগুচ্ছে। সরকার যদি দ্রুত যথাযথ ব্যবস্থা না নেয়, তাহলে তালেবানদের হাতে শহরের পতন হবে।’

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, তালেবান বাহিনী সোমবার বেলা ২টার দিকে বিভিন্ন দিক থেকে হামলা শুরু করে। যদিও তারা কতটা এগিয়েছে, সেটা নিয়ে বিভিন্ন রকম কথা শোনা গেছে।

কাবুলে প্রতিরাক্ষা মন্ত্রণালয়ের একজন মুখপাত্র মোহাম্মদ রাদমানিশ বলেন, তাদের শহর থেকে বের করে দেয়া হয়েছে এবং শহরের নিরাপত্তা শক্তি বাড়ানো হয়েছে। প্রতিবেশী রাজ্য থেকে বিশেষ বাহিনীকে ফারাহতে তলব করা হয়েছে।

কাবুলের ন্যাটো-নেতৃত্বাধীন রেজল্যুট সাপোর্ট মিশনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ইউএস এ-১০ অ্যাটাক বিমান আফগান বাহিনীকে সহায়তা করছে।

মার্কিন বাহিনীর মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট কর্নেল মার্টিন ও’ডোনেল বলেন, ‘ফারাহ শহর এখনও সরকারের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। মার্কিন বাহিনী ও আফগানিস্তানের বিমানশক্তির সহায়তায় আফগান ন্যাশনাল ডিফেন্স অ্যান্ড সিকিউরিটি ফোর্সেস তালেবানদের বিরুদ্ধে আক্রমণাত্মক অভিযান চালাচ্ছে।’