banglanewspaper

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে হাইকোর্টের দেওয়া জামিন বহাল থাকবে কি না তা জানা যাবে আজ।

হাইকোর্টের জামিনাদেশের বিরুদ্ধে দুদক ও রাষ্ট্রপক্ষের আপিলের ওপর মঙ্গলবার এই আদেশ দেবেন প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বে চার বিচারপতির আপিল বেঞ্চ।

গত বুধবার দ্বিতীয় দিনের মতো শুনানি শেষে প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বে চার বিচারপতির আপিল বেঞ্চে আদেশ দেয়ার জন্য আজকের তারিখ ধার্য করেন।

সেদিন আদালতে খালেদার পক্ষে শুনানি শুরু করেন তার আইনজীবী সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল এজে মোহাম্মদ আলী। রাষ্ট্রপক্ষে উপস্থিতি ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম, আর দুদকের পক্ষে রয়েছেন আইনজীবী খুরশিদ আলম।খান।

তার আগের দিন মঙ্গলবার সকালে খালেদা জিয়ার জামিন প্রশ্নে শুনানি করেন দুদকের আইনজীবী খুরশিদ আলম খান। পরে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন। এরপর খালেদার পক্ষে এজে মোহাম্মদ আলী শুনানি শুরু করলেও গতকাল অসমাপ্ত থেকে যায়। সেখান থেকেই বুধবার সকালে শুনানি করেন মোহাম্মদ আলী। আসামিপক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের পর রায় ঘোষণার জন্য ১৫ মে তারিখ নির্ধারণ করেন আপিল বিভাগ।

গত ১৯ মার্চ মামলাটি শুনানির জন্য ৮ মে দিন ধার্য করেছিলেন প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন একই বেঞ্চ।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে হাইকোর্টের দেওয়া জামিন আদেশের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষ ও দুদকের লিভ টু আপিল এবং আপিল বিভাগের স্থগিতাদেশ তুলে নেওয়া সংক্রান্ত খালেদা জিয়ার আবেদনের ওপর এই শুনানি হয়।

গত ১২ মার্চ দুদকের আবেদনের শুনানি নিয়ে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়াকে চার মাসের অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দেন বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ। পাশাপাশি এ মামলায় খালেদা জিয়ার সাজা কেন বাড়ানো হবে না, তা জানতে চেয়ে রুলও জারি করে আদালত।