banglanewspaper

বাংলাদেশের প্রথম স্যাটেলাইটের সফল উৎক্ষেপণে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় তিনি বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের উদ্বোধন ঘোষণা করেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আজ থেকে আমরাও স্যাটেলাইট ক্লাবের গর্বিত সদস্য হলাম।’

শুক্রবার দিবাগত রাত ২ টা ১৪ মিনিটে ফ্লোরিডার কেনেডি স্পেস সেন্টারের লঞ্চ প্যাড-৩৯ থেকে বাংলাদেশের এই স্বপ্ন মহাকাশপানে যাত্রা শুরু করার কিছুক্ষণের মধ্যে স্পেসএক্সের ওয়েবসাইটের ভিডিও লিংকের মাধ্যমে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানান তিনি।

বাংলাদেশের অব্যাহত অগ্রযাত্রার ধারাবাহিকতায় এই স্যাটেলাইট নতুন মাইলফল বলে উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এই উৎক্ষেপণের মধ্য দিয়ে মহাকাশে বাংলাদেশের পতাকা উত্তোলিত হলো জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, কিছুদিনের মধ্যেই দেশের মানুষ স্যাটেলাইটের সুফল পেতে শুরু করবে।

শেখ হাসিনা বলেন,  আজ থেকে আমরাও স্যাটালাইট ক্লাবের গর্বিত সদস্য হলাম। প্রবেশ করলাম এক নতুন যুগে।  বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ সফলভাবে উৎক্ষেপণের মাধ্যমে আমরা আমাদের কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্য পূরণ করতে পারি। ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ, বিটিআরসি, প্রকল্প এবং স্যাটেলাইট কোম্পানির কর্মীদের আমি আন্তরিক ধন্যবাদ জানাচ্ছি। আমি নির্মাতা ও উৎক্ষেপণকারী উভয় প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উক্ষেপণ উপলক্ষে ফ্লোরিডার নাসা স্পেস সেন্টারে ছিলো প্রচণ্ড ভিড়। ওই দেশে বসবাসরত অসংখ্য প্রবাসী বাংলাদেশির উপস্থিতিতে উৎসবে পরিণত হয় নাসা সেন্টার।

সেই মাহেদ্রক্ষণে নাসা সেন্টারে ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজিব ওয়াজেদ জয়সহ দেশের গুরুত্বপূর্ণ সরকারি কর্মকর্তারা। স্যাটেলাইটের সফল উৎক্ষেপণের পর নাসা সেন্টারে উপস্থিত সবার সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। অভিনন্দন জানান এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবাইকে।

মহাকাশের ১১৯ দশমিক ১ ডিগ্রি পূর্ব দ্রাঘিমায় অবস্থান করবে কৃত্রিম উপগ্রহ বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১। আর এটি কক্ষপথ থেকে বাংলাদেশ ছাড়াও সার্কভুক্ত সব দেশ, ইন্দোনেশিয়া, ফিলিপাইন, মিয়ানমার, তাজিকিস্তানসহ আশপাশের দেশ ফ্রিকোয়েন্সির আওতায় আসবে। টেলিভিশন ও বেতার সম্প্রচার, ইন্টারনেট সেবাদান, ভি-স্যাটসহ ৪০ ধরনের সেবা দেবে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১। 

দেশের বাইরে তিনটি গ্রাউন্ড স্টেশন থেকে স্যটেলাইটটি প্রাথমিকভাবে পরিচালনা করবে ফ্রান্সের থ্যালেস এলেনিয়া স্পেস। তবে পরবর্তী সময় বাংলাদেশের গাজীপুরের জয়দেবপুর এবং রাঙ্গামাটির বেতবুনিয়া থেকেই পরিচালিত হবে বঙ্গবন্ধু-স্যাটেলাইট-ওয়ান।