banglanewspaper

ক্রীড়া ডেস্ক : ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজ নিদাহাস ট্রফির চতুর্থ ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে ৬ উইকেটে হারিয়ে আসরের দ্বিতীয় জয় তুলে নিল ভারত। যদিও টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী ম্যাচে এই লঙ্কানদের কাছেই হেরে শুরু করেছিল কোহলি-ধোনিহীন ভারত। তবে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে আসরের অন্য দল বাংলাদেশকে হারায় তারা।

এদিন টস জিতে লঙ্কানদের ব্যাটিংয়ে পাঠান ভারতের অধিনায়ক রোহিত শর্মা। ব্যাট করতে নেমে উড়ন্ত সূচনা করলেও টিম ইন্ডিয়ার বোলারদের দাপটে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৫২ রান করতে সক্ষম হয় চন্ডিকা হাথুরুসিংহের শিষ্যরা। 

দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৫৫ রান করেন কুশল মেন্ডিস। ৩৮ বলের এই ইনিংসটি টানা দ্বিতীয় ও ক্যারিয়ারের চতুর্থ হাফসেঞ্চুরি এই ওপেনারের। এছাড়া উপল থারাঙ্গা ২২ ও দাসুন শানাকা করেন ১৯ রান।

ভারতের হয়ে শাদরুল ঠাকুর চারটি, ওশিংটন সুন্দর দুটি করে উইকেট নেন। একটি করে উইকেট শিকার করেন জয়দেব উনাদকাট, জুযবেন্দ্র চাহাল ও বিজয় শংকর।

১৫৩ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে আকিলা ধনাঞ্জয়ার ঘূর্ণিতে পড়ে শুরুটা ভালো করতে পারেনি সফরকারীরা। দলীয় ২২ রানেই সাজঘরে ফিরে গেছেন দুই ওপেনার রোহিত শর্মা ও শিখর ধাওয়ান। দুইজনকে শিকার করেন বাঁহাতি স্পিনার ধনাঞ্জয়া। এরপর লোকেশ রাহুলকে নিয়ে ৪০ রানের জুটি গড়েন সুরেশ রায়না। এ জুটি ভাঙ্গেন নুয়ান প্রদিপ। 

থিসারা পেরেরা তালুবন্দি হয়ে ব্যক্তিগত ২৭ রানে ফেরেন রায়না। ১৫ বলে সমান সংখ্যক ২টি করে চার ও ছক্কা নিজের ইনিংস খেলেন রায়না। এরপর খুব বেশিক্ষণ টিকতে পারেনি রাহুলও। হিট উইকেট হয়েছেন তিনি। 

এরপর উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান দিনেশ কার্তিককে নিয়ে দলের হাল ধরেন পান্ডে। অবিচ্ছিন্ন ৬৮ রানের জুটি গড়েন এ দুই ব্যাটসম্যান। আর তাতেই ৯ বল হাতে রেখে ৬ উইকেটের জয় পায় ভারত। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪২ রানের ইনিংস খেলেন পান্ডে। ৩১ বলে ৩টি চার ও ১টি ছক্কায় নিজের ইনিংস সাজান তিনি। ২৫ বলে ৫টি চারের সাহায্যে ৩৯ রান করেন কার্তিক। শ্রীলঙ্কার পক্ষে ১৯ রানের খরচায় ২টি উইকেট নেন ধনাঞ্জয়া।