banglanewspaper

বিনোদন ডেস্ক : আইনি জটিলতায় পড়ে ফেঁসে যাচ্ছেন বলিউডের অন্যতম আলোচিত অভিনেতা নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকী। কল রেকর্ড কেলেঙ্কারিতে জড়িত থাকার অভিযোগে নওয়াজউদ্দিন, তাঁর স্ত্রী অঞ্জলি সিদ্দিকী এবং তাঁর আইনজীবী রিজওয়ান সিদ্দিকীর বিরুদ্ধে সমন জারি করেছে মহারাষ্ট্র পুলিশ। 

ভারতীয় গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, গতকাল শুক্রবার তাদের বিরুদ্ধে সমন জারি করা হয়েছে। এ বছরের জানুয়ারি মাসে পুলিশ চারজন বেসরকারি গোয়েন্দাকে (প্রাইভেট ডিটেকটিভ) আটক করে। এদের মধ্যে একজন নওয়াজের আইনজীবী রিজওয়ানকে নওয়াজের স্ত্রী অঞ্জলির ব্যক্তিগত ফোনকল রেকর্ডের বিস্তারিত তথ্য পেতে সহযোগিতা করেছিল। এই অভিযোগে ওই ব্যক্তিকে আটক করা হয়, সাথে আটক করা হয় আরো তিনজনকে।

মহারাষ্ট্রের থানে শহর পুলিশের উপকমিশনার (অপরাধ) অভিষেক ত্রিমুখী বলেন, আমরা তিনজনকে আটক করেছি। এরা সন্দেহভাজন। এদের দেওয়া অভিযোগের ভিত্তিতে ওই তিনজনের বিরুদ্ধে সমন জারি করা হয়েছে। আমরা বিষয়টি যাচাই করতে চাই, তাই এই সমনের আয়োজন।

নওয়াজ-অঞ্জলি দম্পতির ভেতর সাম্প্রতিক সময়ে দ্বন্দ্বের কারণে ওই আইনজীবী ফোনকল রেকর্ড চেয়েছিলেন বলে মন্তব্য করেন পুলিশের এই ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা। আর এ বিষয়টি তখনই স্পষ্ট হবে যখন এ-প্রসঙ্গে অভিনেতা নওয়াজের বক্তব্য পাওয়া যাবে, যোগ করেন তিনি।

পুলিশ এ অভিযোগকে সামনে রেখে মোট ১১ জনকে আটক করেছে। এর মধ্যে আছেন সুপরিচিত প্রাইভেট ডিটেকটিভ রজনী পণ্ডিত। তাঁর বিরুদ্ধেই কল রেকর্ড সংগ্রহ ও বিক্রয়ের প্রধান অভিযোগটি রয়েছে। এটি বিশেষ আদালতে আগামী সোমবার রজনী পণ্ডিতের জামিনের শুনানি করবে।

আজ শনিবার অভিনেতা তাঁর বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ খণ্ডন করে নিজের ট্যুইটার হ্যান্ডেলে বলেন, আমি গতকাল বিকেলে মেয়েকে তার স্কুলের একটি প্রজেক্ট তৈরিতে সহায়তা করেছি এবং আজ সকালে ওই প্রজেক্ট নিয়ে তাকে স্কুলে পৌঁছে দিয়েছি। এটা বিস্ময়কর যে গণমাধ্যম কোনো একটি বিষয নিয়ে আমার বিরুদ্ধে অনবরত অভিযোগ তুলে যাচ্ছে।