banglanewspaper

মোস্তফা ইমরান রাজু, মালয়েশিয়া: প্রথমবারের মতো কোনো মোবাইল ফোন কোম্পানির সঙ্গে ব্রান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসাবে যুক্ত হলেন দু’পার বাংলার জনপ্রিয় চিত্রনায়ক ফেরদৌস। সোমবার এ উপলক্ষে কুয়ালালামপুরের দামানসারায় টেলিফোন অপারেটরটির নিজস্ব কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন তিনি।  

চিত্রনায়ক ফেরদৌস বলেন, ‘আমার পুরো ক্যারিয়ারে কোনো ফোন কোম্পানির সঙ্গে যুক্ত হইনি। প্রথমবারের মতো ফেল্ডা কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে আমার ভালো লেগেছে। ফেল্ডা প্রবাসী বাংলাদেশীদের নিয়ে সত্যি-ই সম্পূর্ণ নতুন কিছু নিয়ে আসছে যা সাধারণ প্রবাসীদের অনেকাংশে ভোগান্তিমুক্ত করতে পারে। আর এজন্যই আমি এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছি।

তিনি বলেন, গেলো কয়েকদিনে আমি এটা নিয়ে স্টাডি করেছি। এর মধ্যে আমার সবচেয়ে ভালো লেগেছে এই সিম কার্ডের আওতায় ইন্স্যুরেন্স কাভারেজ। এর ফলে একজন প্রবাসীকে নিঃস্ব হয়ে দেশে ফিরতে হবে না, এমনকি সে মারা গেলেও মোটা অঙ্কের টাকা পাবে তার পরিবার। 

এসময় উপস্থিত ছিলেন ফেল্ডা সিম কার্ডের সিইও সাব্বির আহমেদ। তিনি ফেল্ডা সিম কার্ড ব্যাবহারে প্রবাসী বাংলাদেশীরা কি কি সেবা পাবেন এই নিয়ে কথা বলেন।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ফেল্ডাফোনের কুয়ালালামপুরের পরিবেশক কাজী সালাউদ্দিন, মাইগ্রেন্ট মার্কেট ম্যানেজার মোহাম্মদ জাহিদী ও কাস্টমার সার্ভিস ম্যানেজার শফিকুর রহমান জয়। 

খুব শীঘ্রই মালয়েশিয়া প্রবাসী বাংলাদেশীদের সহায়ক হিসাবে ফেল্ডা বাজারে আসছে বলে জানান এর কর্মকর্তারা। 

এর আগে রবিবার দিনব্যাপী কুয়ালালামপুরের বাংলাদেশী মার্কেট খ্যাত কোতারায়াসহ আশপাশের বাংলাদেশী অধ্যুষিত বিভিন্ন এলাকায় প্রচারনায় অংশ নেন ফেরদৌস। 

উল্লেখ্য, ফেল্ডা মোবাইল এসডিএন বিএইচডি নামের প্রতিষ্ঠানটি মুলত বেশির ভাগই বাংলাদেশীদের দ্বারা পরিচালিত একটি বাংলাদেশী প্রতিষ্ঠান। শুধুমাত্র মালয়েশিয়ান সরকারের নিয়ম-নীতির কারনেই মালয়েশিয়ার বড় কোম্পানী ফেল্ডার সাথে যৌথভাবে ব্যবসা পরিচালনা করছে।